জোরেশোরে গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন এমপি চঞ্চল 

আগের সংবাদ

জমি নিয়ে সংঘর্ষ কোটচাঁদপুরে ৯ জন আহত 

পরের সংবাদ

আলমডাঙ্গায় সদ্য যোগদানকৃত ওসির সাথে ডাকবাংলোতে এমপির প্রতিনিধির তিন ঘণ্টাব্যাপী রুদ্ধদ্বার বৈঠকের অভিযোগ

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১১, ২০২৩ , ৯:৩৪ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ডিসেম্বর ১১, ২০২৩ , ১২:২৪ অপরাহ্ণ
চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গা থানায় সদ্য যোগদানকৃত ওসি মাগুরা জেলার শালিখা থানা থেকে আগত ওসি মোশারেফ হোসেনের বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘন করে চুয়াডাঙ্গা এক আসনের বর্তমান সংসদ সদস্যের প্রতিনিধি সোনাহারের সাথে তিন ঘণ্টাব্যাপী রুদ্ধদ্বার বৈঠকের অভিযোগ উঠেছে। প্রত্যক্ষদর্শীর বরাৎ দিয়ে আওয়ামীলীগের স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রতিনিধি ও সাপোর্টাররা এ অভিযোগ করেন। এক অভিযোগ পত্রে তারা বলেন আলমডাঙ্গা অঞ্চলে বর্তমান এমপিকে যে কোনো উপায়ে বিজয়ী করার ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে আলমডাঙ্গায় চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের এমপির ঘনিষ্ঠ সহচর আলমডাঙ্গা উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক সোনাহারের সাথে নবাগত ওসি মোশারেফ হোসেন শুক্রবার রাত ১১টা থেকে শুরু করে রাত প্রায় ২টা পর্যন্ত আলমডাঙ্গা শহরের ডাকবাংলোতে ৩ ঘণ্টাব্যাপী রুদ্ধদ্বার বৈঠক হয়েছে। যা নির্বাচনী আচরণবিধি আইনের চুড়ান্ত লঙ্ঘণ। বলছেন স্বতন্ত্রপ্রার্থীর কর্মী সমর্থক ও স্থানিয় সচেতন সমাজ।
এদিকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশানুসারে আওয়ামীলীগের স্বতন্ত্রপ্রার্থীরা যে কোন আসন থেকে নৌকার বিপক্ষে ভোটযুদ্ধ করতে পারবেন বলে ঘোষণা দেওয়ার পর থেকে দেশের ৩০০ আসনের মধ্যে ইতিমধ্যে ২৬৮ জন স্বতন্ত্রপ্রার্থী সরাসরি ভোটযুদ্ধে অবতীর্ণ হয়েছেন। আর এ নির্বাচনকে নিষ্কন্টক করতে নির্বাচন কমিশন ইতোমধ্যে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ডিসি, এসপি, ইউএনও থেকে শুরু করে ৩৩৮ জন ওসিকে রদবদল ও বদলী করেছে।
এ বিষয়ে অভিযোগের সত্যতা যাচাইয়ে ওসি মোশারফ হোসেনকে মোবাইলে কল করার উদ্দেশ্যে আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জের সরকারী মোবাইল নাম্বারে কল করা হলে বর্তমান কর্তব্যরত অফিসার ইনচার্জ বিপ্লব কুমার নাথ এই প্রতিবেদককে বলেন, সদ্য যোগদানকৃত ওসি শালিখা থেকে আগত মোশারেফ হোসেন জেলা পুলিশের কর্ণধার এসপি ফয়জুর রহমান স্যারের চার্জ অর্ডার বুঝে নেওয়ার অপেক্ষায় বর্তমানে আলডাঙ্গার ডাকবাংলোতে অবস্থান করছে কথা সত্য। তবে তিনি এক আসনের এমপির কোন প্রতিনিধির সাথে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেছেন কি না তা আমার জানা নেই, তাছাড়া এ বিষয়ে আলমডাঙ্গা থানাতে কোন অভিযোগও কেউ করেনি।
অভিযোগের বিষয়ে আলমডাঙ্গা উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক সোনাহার এই প্রতিবেদককে বলেন, আলমডাঙ্গার নতুন ওসি আলমডাঙ্গা ডাকবাংলোতে আছে বলে শুনেছি কিন্ত ওসি সাহেবের সাথে আমার সরাসরি এখনো দেখা হয়নি। আর রুদ্ধদ্বার বৈঠক প্রসঙ্গে বলেন, সেলুন জোয়ার্দ্দারের পক্ষে থানা ওসির সাথে নির্বাচন বিষয়ে এক আসনের বর্তমান এমপির পক্ষে আমি কথা বলবো এটা তো অসম্ভব। কারণ হিসেবে তিনি বলেন দশম জাতীয় নির্বাচনের পেনেরো দিন পর থেকেই সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দারের সাথে আলমডাঙ্গা উপজেলা যুবলীগের সব ধরণের যোগাযোগ বন্ধ। বরং ছেলুন জোয়ার্দ্দারের কারণে আমরা আলমডাঙ্গা যুলীগের কর্মীরা আজ পাচ বছর যাবৎ নানবিধ অন্যায় অত্যাচার জুলুম এবং ভৌতিক মামলার আসামিও হয়েছি, তাই আলমডাঙ্গা উপজেলা যুবলীগ কখনো মনে প্রাণে চায়না ছেলুন জোয়ার্দ্দার আবারো এমপি হোক।
আর স্বতন্ত্র প্রার্থী বাবু দিলীপ কুমার আগরওয়ালা প্রসঙ্গে আলমডাঙ্গা উপজেলা যুবলীগের এই শীর্ষ নেতা বলেন,  আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নির্দেশে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন, তিনি আমাদের দলেরই লোক, তাই তার ক্ষতি আমরা কখনো আশা করিনা।তিনি আরও বলেন– যেহেতু ছেলুন জোয়ার্দ্দার এমপির সাথে আমাদের মুখ দেখাদেখি বন্ধ এবং তারদ্বারা উপজেলা যুবলীগের কখনো এক পয়সার উপকারও হয়না তাহলে বাবু দিলীপ কুমার আগরওয়ালা এমপি হলে আমাদের সমস্যা কোথায়—বলে এই নেতা এই প্রতিবেদকের দিকে পাল্টা প্রশ্ন ছুড়ে দেন।
এ বিষয়ে আলমডাঙ্গা থানায় যোগদানের উদ্দেশ্যে আলমডাঙ্গার সরকারি ডাকবাংলোতে অবস্থানরত ওসি মোশারেফ হোসেনকে মোবাইলে কল করা হলে তিনি বলেন, আমি মূলত: আলমডাঙ্গায় নতুন এসেছি। কাউকে চিনিও না। তবে ডাকবাংলোতে স্থানিয় কয়েকজন নেতাকর্মী জাস্ট সৌজন্য স্বাক্ষাৎ করার জন্য এসেছিলেন। তারমধ্যে সোনাহার নামের কেউ ছিলেন কি-না এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন ওদের মধ্যে একজন সোনাহার ছিলেন তবে তারা ৭/৮ মিনিটের মধ্যেই সৌজন্য স্বাক্ষাত শেষে ডাকবাংলো ত্যাগ করেন। আর রুদ্ধদ্বার বৈঠক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি তো চার্জ বুঝেই পাইনি তো রুদ্ধদ্বার বৈঠক করবো কিভাবে ? তিনি আরও বলেন, তাছাড়া যে কোনো মূল্যে বাংলাদেশ পুলিশের ভাবমূর্তি রক্ষায় এবং নির্বাচন কমিশন কর্তৃক আমাদের উপরে অর্পিত দায়িত্ব আমরা এসপি স্যারের নির্দেশানুসারে অক্ষরে অক্ষরে পালন করবো।
এই অভিযোগের বিষয়ে আওয়ামীলীগের স্বতন্ত্রপ্রার্থী বাবু দিলীপ কুমার বলেন, শুধু আলমডাঙ্গা নয় চুয়াডাঙ্গা সদর এলাকাতেও বিভিন্নভাবে স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রচার প্রচারণায় বিঘ্ন ঘটানোর অপচেষ্টা হচ্ছে, আমি আজকালের মধ্যেই বিষয়টি আমার আইনজীবীর মাধ্যমে নির্বাচন কমিশনকে লিখিতভাবে অবহিত করবো।
এ বিষয়ে জেলা পুলিশ সুপার ফয়জুর রহমান এর বক্তব্য জানতে চেয়ে দুপুর ১-১৪ মিনিটের সময় পরপর দু’বার মোবাইলে কল করা হলেও তিনি রিসিভ না করাই তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, রুপান্তর প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়