চা বিক্রি করে লাখ টাকা আয়

আগের সংবাদ

রাইস মিলের ফিতায় চাদর জড়িয়ে বৃদ্ধার মৃত্যু

পরের সংবাদ

চুয়াডাঙ্গায় তাপমাত্রা বাড়লেও মাঝারী শৈতপ্রবাহে দুর্ভোগ কমেনি

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৪, ২০২৪ , ৬:২১ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জানুয়ারি ২৪, ২০২৪ , ৬:২১ পূর্বাহ্ণ

দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জেলা চুয়াডাঙ্গায় তাপমাত্রা কিছুটা বাড়লেও বইছে মৃদু থেকে মাঝারী শৈত্যপ্রবাহ। হাড় কাঁপানো শীত ও ঘন কুয়াশার সঙ্গে হিমেল হাওয়ায় স্থবির হয়ে পড়েছে এখানকার জনজীবন।

বুধবার (২৪ জানুয়ারি) সকাল ৯টায় এ জেলায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এসময় বাতাসের আর্দ্রতা ছিল ৯৫ শতাংশ।
জেলার প্রথম শ্রেণির আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগার সূত্রে জানা গেছে, গত সপ্তাহে জেলায় গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির পর থেকে তাপমাত্রার পারদ ক্রমেই নিচে নামতে থাকে। শনিবার (২০ জানুয়ারি) জেলায় তাপমাত্রা ছিল ১০ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। রোববার ১০ দশমিক ৭ ডিগ্রি ও সোমবার ৯ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বশেষ গত মঙ্গলবার এক দিনের ব্যবধানে তাপমাত্রা ৩ ডিগ্রি কমে দাঁড়ায় ৬ দশমিক ৬ ডিগ্রিতে। যা এ মৌসুমে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

বুধবার সকালে জেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, কনকনে ঠান্ডায় মানুষ জরুরি প্রয়োজন ছাড়া খুব একটা বাইরে বের হননি। বিভিন্ন মোড়ে ও চায়ের দোকানের পাশে শীত নিবারনের জন্য আগুন জ্বালিয়ে উত্তাপ নিচ্ছেন শীতার্ত মানুষ। হাসপাতালগুলোতে বেড়েছে ঠান্ডাজনিত রোগীর সংখ্যা। শিশু ও বৃদ্ধরা এ শীতে সবচেয়ে বেশি অসুস্থ হচ্ছেন।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, রুপান্তর প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়