ডেঙ্গু মোকাবিলায় সমন্বিত পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জাপা এমপির

আগের সংবাদ

জুলাইয়ে সঞ্চয়পত্রে বেড়েছে বিনিয়োগ

পরের সংবাদ

শেয়ার বাজার

টানা দু’দিন ৭০০ কোটি টাকার বেশি লেনদেন

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৮, ২০২৩ , ৫:১৫ পূর্বাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ৮, ২০২৩ , ৫:১৫ পূর্বাহ্ণ

আগের দিনের তুলনায় কিছুটা কমলেও বৃহস্পতিবার টানা দ্বিতীয় দিন ঢাকার শেয়ারবাজার ডিএসইতে ৭০০ কোটি টাকার বেশি মূল্যের শেয়ার কেনাবেচা হয়েছে। গতকাল এ বাজারে কেনাবেচা হওয়া শেয়ারের মোট মূল্য ছিল ৭০০ কোটি ৭৯ লাখ টাকা। এ লেনদেন গত মঙ্গলবারের তুলনায় সাড়ে ৩৩ কোটি টাকা কম।

লেনদেন খরার মধ্যে ৭০০ কোটি টাকার লেনদেন আশাব্যঞ্জক বলে মনে করছেন শেয়ারবাজারসংশ্লিষ্টরা। তবে ঘুরেফিরে কিছু শেয়ার ঘিরে লেনদেন আবর্তিত হওয়া নিয়ে অস্বস্তিও আছে তাদের মধ্যে। আবার ৭০০ কোটি টাকার লেনদেনের মধ্যে ব্লক মার্কেটের অবদানও ছিল বেশ। এদিন এ বাজারে ৯২ কোটি টাকার লেনদেন হয়। আবার এর মধ্যে বেক্সিমকো সুকুকেরই প্রায় ৫০ কোটি টাকার লেনদেন ছিল।

পর্যালোচনায় দেখা গেছে, গত কয়েক সপ্তাহ মোট লেনদেনের ৬০ শতাংশ হয়েছে লেনদেনের শীর্ষ ২০ শেয়ারে। এ ক্ষেত্রে বড় পরিবর্তন দেখা গেছে। লেনদেনের শীর্ষ ২০ শেয়ারে কেনাবেচা হয়েছে মোটের ৩২৮ কোটি ২৯ লাখ টাকার শেয়ার, যা মোট লেনদেনের ৪৬ দশমিক ৮৫ শতাংশ। অর্থাৎ অনেক শেয়ারের লেনদেন বেড়েছে।

পর্যালোচনায় দেখা গেছে, লেনদেন বৃদ্ধি পাওয়া শেয়ারগুলোর প্রায় সবই বীমা খাতের। ডিএসইতে বীমা খাতের তালিকাভুক্ত ৫৭ কোম্পানির মধ্যে ৫৬টির শেয়ার কেনাবেচা হয়েছে। সম্মিলিতভাবে এসব শেয়ারের লেনদেন মূল্য ছিল ২৩২ কোটি ৬৬ লাখ টাকা, যা মোট লেনদেনের সোয়া ৩৩ শতাংশ। খাতওয়ারি হিসেবে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৯৬ কোটি ৩০ লাখ টাকার শেয়ার কেনাবেচা হয়েছে খাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাতে।

খাতওয়ারি হিসেবে লেনদেনের শীর্ষে থাকলেও একক কোম্পানি হিসেবে লেনদেনের শীর্ষ ১০ শেয়ারের মধ্যে মাত্র দুটি ছিল বীমা খাতের। লেনদেনের ষষ্ঠ ও সপ্তম অবস্থানে থাকা কন্টিনেন্টাল এবং গ্রিনডেল্টা ইন্স্যুরেন্সের সাড়ে ১৬ কোটি টাকার এবং পৌনে ১৫ কোটি টাকার শেয়ার কেনাবেচা হয়েছে। আর শীর্ষ ২০ শেয়ারের মধ্যে এ খাতের শেয়ার ছিল মোট সাতটি। একক কোম্পানি হিসেবে ফু-ওয়াং ফুড প্রায় ৫৭ কোটি টাকার লেনদেন নিয়ে ছিল সবার ওপরে।

একক কোম্পানি হিসেবে লেনদেন তালিকার ওপরে না থাকলেও দরবৃদ্ধির শীর্ষ ২০ কোম্পানির তালিকার ১৩ শেয়ারই ছিল বীমা খাতের। এর মধ্যে সর্বাধিক দরবৃদ্ধি পাওয়া প্রথম ১০ শেয়ারের আটটিই ছিল বীমা খাতের। যদিও বীমা খাতের ২৫ শেয়ারের দরবৃদ্ধির বিপরীতে ২৩টির দর কমেছে; লেনদেন হওয়া বাকি আটটির দর অপরিবর্তিত ছিল।

সার্বিক হিসাবে ডিএসইতে ৫৩ শেয়ারের দরবৃদ্ধির বিপরীতে ১০৯টির দর কমেছে, অপরিবর্তিত থেকেছে ১৬৭টির দর। ক্রেতার অভাবে ৬৩টি শেয়ারের কোনো লেনদেন হয়নি। বেশির ভাগ শেয়ারের দর কমায় ডিএসইএক্স সূচক প্রায় ১০ পয়েন্ট হারিয়ে ৬৩০৭ পয়েন্টে নেমেছে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, রুপান্তর প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়