সাভারে কানুনগো জিয়ার রাম রাজত্ব 

আগের সংবাদ

জোয়ার সাহারা বিআরটিএ অফিসে পরিদর্শক জিয়ার রমরমা বাণিজ্য

পরের সংবাদ

ডুগডুগির সর্বনাশা জুয়ায় সর্বশান্ত মানুষ, দেখার কেউ নেই???

প্রকাশিত: জুলাই ১, ২০২৪ , ২:১২ অপরাহ্ণ আপডেট: জুলাই ১, ২০২৪ , ২:১২ অপরাহ্ণ

এমডি আরিফ, নিজস্ব প্রতিবেদক:::

ডুগডুগির সর্বনাশা তিনতাস( ফ্লাশ) ও কাটাকাটি খেলায় বাড়ছে অপরাধ প্রবণতা, চুরি, ছিনতাই, ডাকাতিসহ সর্বশান্ত জুয়াড়িরা জড়াচ্ছে নানাবিধ অপকর্মে। দামুড়হুদা উপজেলার ডুগডুগি হাট সংলগ্ন হাউলী ইউনিয়ন পরিষদের পিছনের আমবাগানে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চলছে এই সর্বনাশা জুয়া। কূখ্যাত জুয়া পরিচালক রাজু, রবি আর ফয়েজের নেতৃত্বে এই জুয়া এখন ওপেন সিক্রেট। ভাগ্য পরিবর্তনের নেশায় এখানে মানুষ হররোজ হারছে লক্ষ লক্ষ টাকা। আর প্রতিদিন আঙুল ফুলে কলাগাছ হচ্ছে রাজু, রবি আর ফয়েজের। বর্তমান এই জুয়া সংক্রামক ব্যাধির মতো ছড়িয়ে পড়ছে। প্রতিদিন আলমডাঙ্গা, ঝিনাইদহ, মহেশপুর, মাগুরা, পোড়াদহ সহ বিভিন্ন এলাকা থেকে মানুষ আসছে জুয়ার নেশায়। এই বোর্ডে জুয়ার মধ্যে চলে বিভিন্ন এলাকা থেকে চুরি ছিনতাই করে নিয়ে আসা স্বর্ণালঙ্কার কমদামে বিক্রি।
এই জুয়ার বোর্ড এর লভ্যাংশের ভাগ সাপ্তাহিক হিসেবে পাচ্ছে তৃতীয় শ্রেণীর কতিপয় নেতা-কর্মী, থানার কথিত দালাল, স্থানীয় কিছু পাতি মাস্তান। এছাড়া চুয়াডাঙ্গা, দামুড়হুদা ও দর্শনা হতে মোটরসাইকেলে আসা কিছু যুবকেও বিশেষ উদ্দেশ্যে ঘোরাফেরা করতে দেখা যায়।
প্রতিদিন খেলা শুরুর আগে জুয়ার বোর্ডের চতুর্পাশে রাজুর ভাড়া করা লোক থাকে ছদ্মবেশে পাহারায়। সন্দেহজনক বা পুলিশ প্রশাসনের লোককে ঢুকতে দেখলেই মোবাইলে মিসকল দিয়ে শতর্ক করে দেয়। কখনো কখনো মোবাইল নেটওয়ার্ক কাজ না করলে এরা ভারত থেকে আনা চকলেট বোম ফুটিয়ে বিকট শব্দ করে খেলোয়াড়দের সতর্ক করে।
বর্তমানে ডুগডুগি জয়রামপুর সহ আশেপাশের মানুষ এদের অবৈধ জুয়ার বোর্ডের প্রতি সাধারণ মানুষ ত্যক্ত বিরক্ত। তারপরও পুলিশের ঝটিকা অভিযান না হওয়ায় এই সর্বনাশা জুয়া চলছে স্বমহিমায় স্বতঃস্ফূর্তভাবে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, রুপান্তর প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়