পরাজয় জেনেই ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসতে চায় বিএনপি : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আগের সংবাদ

ব্রহ্মপুত্র নদে ধরা পড়লো ৮৫ কেজির বাগাড়

পরের সংবাদ

মিশর আল-আজহার বিশ্বাবিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক  ড. শিব্বির আহমদের ১৪তম মৃত্যুবার্ষিকী

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৩, ২০২৩ , ৮:৪১ পূর্বাহ্ণ আপডেট: ডিসেম্বর ৩, ২০২৩ , ৮:৪১ পূর্বাহ্ণ
দক্ষিণ এশিয়া উপমহাদেশের স্বনামধন্য আলেমেদ্বীন, ধর্মপ্রাণ ব্যক্তিত্ব সর্বজন পরিচিত বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ বিশ্ববিদ্যালয় ইসলামী শিক্ষার বৃহত্তম শিক্ষা প্রতিষ্টান   ৯৭০ সালে প্রতিষ্ঠিত মিশরের, কায়রো নগরীতে অবস্থিত  বিখ্যাত জামিয়া আল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয় মিশর Al-Azhar University) جامعة الأزهر (الشريف)‎‎ Jāmiʻat al-Azhar University  ও সৌদিআরব মদিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের এর সাবেক সিনিয়র অধ্যাপক ও দক্ষিন চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্টান জলদী মখজনুল উলুম (বাঈঙ্গাপাড়া) বাঁশখালী বড় মাদ্রাসার প্রতিষ্টাতা পরিচালক পীরে কামেল মরহুম মাওলানা মোহাম্মদ আলী (রাহঃ) সাহেবের ১ম পুত্র শাইখুল ইসলাম আলহাজ্ব মরহুম মাওলানা ড. শিব্বির আহমদ (রাহঃ) ১৪ম মৃত্যুবার্ষিকী আজ।
তিনি ২০০৮ সালের ২৮ নভেম্বর শুক্রবার মদিনাতুল মোনাওয়ারা আল মিসকাত হসপিটাল চিকিৎসাধীন অবস্থায়  ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্নাইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল (৮২) বছর। তাকে মদিনা মসজিদে নববীতে নামাজে জানাযা শেষে তাকে জান্নাতুল বকীতে দাফন করা হয়।
ছাত্র জীবনঃ
তিনি জলদী মখজনুল উলুম মাদ্রাসা থেকে নাজেরা বিভাগ শেষ করে মেখল মাদ্রাসায় ভর্তি হয়,এর পর দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম হাটহাজারী আরবি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দাওরায়ে হাদিস ১নং মেধা তালিকায় উত্তীর্ণ হয়ে পরবর্তীতে তিনি দারুল উলুম দেওবান মাদ্রাসা থেকে প্রথম বিভাগে উত্তীর্ণ হয়ে আল ওরম্যান, গিজা গভর্নেট মিশর কায়রো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উচ্চশিক্ষায়  ইসলাম স্টাডিজ অনুষদ, বিষয়ের উপর ডক্টরেট ডিগ্রি (পিএইসডি) অর্জন করেন। পরবর্তীতে তিনি আল মোখাইম আল দায়েম, নসর সিটি, কায়রো, মিশর আল-আজহারের বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করেন। এরপর তিনি সৌদিআরব মদিনা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপক হিসেবে দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালন করেন।
শিক্ষকতা ও কর্ম জীবনঃ
বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ বিশ্ববিদ্যালয় জামিয়া আল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয় মিশর Al-Azhar University) جامعة الأزهر (الشريف)‎‎ Jāmiʻat al-Azhar University, পাকিস্তানের ইসলামাবাদ কায়েদ-ই-আজম বিশ্ববিদ্যালয় ও সৌদিআরব মদিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের এর সিনিয়র অধ্যাপক হিসেবে আমৃত্যু দায়িত্বে নিয়োজিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, সৌদি আরব সরকারের তারফা বিনতে আবদুল্লাহ বিন আবদুল আতিফ আল শাইখের পুত্র ফয়সাল বিন আবদুল আজিজ সহ অনেক সৌদি সরকারের মন্ত্রী থেকে শুরু করে উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা কর্মচারী তার ছাত্র রয়েছেন।
তিনি আল জামিয়াতুল ইসলামিয়া জলদী মখজনুল উলুম (বাঈঙ্গাপাড়া) বাঁশখালী বড় মাদ্রাসার দাতা ও প্রতিষ্ঠাতা সদস্য (মোতয়াল্লী), দৈনিক মানবকন্ঠ, দৈনিক প্রতিদিনের সংবাদ ও দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশ পত্রিকার বাঁশখালী প্রতিনিধি মুহাম্মদ মিজান বিন তাহের এর বড় আব্বা।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, রুপান্তর প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়