আরও কমলো স্বর্ণের দাম

আগের সংবাদ

সাংবাদিক সজীব আকবরের কবিতা “নমিনেশন যুদ্ধ”

পরের সংবাদ

স্মার্ট বাংলাদেশের জন্য স্মার্ট সাংবাদিকতা জরুরি–স্পিকার

প্রকাশিত: অক্টোবর ৫, ২০২৩ , ৬:০২ পূর্বাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ৫, ২০২৩ , ৬:০২ পূর্বাহ্ণ

বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০৪১ সালের মধ্যে স্মার্ট বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। সেজন্য দেশের প্রতিটি অঞ্চলের খবর স্মার্টভাবে পত্রিকায় প্রকাশের ক্ষেত্রে সাংবাদিকদের উদ্যোগী হতে হবে। তিনি বলেন, স্মার্ট বাংলাদেশের জন্য স্মার্ট সাংবাদিকতা জরুরি।

তিনি আজ রাজধানীস্থ ঢাকা ক্লাবে নেক্সট পাবলিকেশন লিমিটেডের আয়োজনে ‘দ্যা ডেইলি পিপলস লাইফ’ পত্রিকার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে এসব কথা বলেন।

দ্য ডেইলি পিপলস লাইফের সম্পাদক মো আজিজুল ইসলাম ভূঁইয়া অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন  এবং  প্রকাশক নাফিসা জুমাইনা মাহমুদের বক্তব্য পড়ে শোনানো হয়। সম্মানিত অতিথি হিসেবে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ এমপি বক্তব্য প্রদান করেন।  এ অনুষ্ঠানে সম্পাদকমণ্ডলীর চেয়ারম্যান হাসান রহমান সকলকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি বলেন, গণতন্ত্র ও গণমাধ্যম পারস্পরিকভাবে জড়িত। তাই গণতন্ত্রকে সঠিক পথে রাখতে গণমাধ্যম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে।  যথাযথ সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে পত্রিকাটি দেশের গণতান্ত্রিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে বলে  আশাবাদ ব্যক্ত করেন স্পিকার ।

স্পিকার বলেন, দ্য ডেইলি পিপলস লাইফ পত্রিকাটি বস্তুনিষ্ঠ ও দায়িত্বশীলতা সাংবাদিকতায় অঙ্গীকারাবদ্ধ। তিনি বলেন, এদেশে ইংরেজি পত্রিকা পড়ার অনেক পাঠক রয়েছে,  তাদের নিকট বাংলাদেশকে সঠিকভাবে তুলে ধরতে হবে। তিনি বলেন,  জনগণের নিত্যদিনের কথা সুষ্ঠুভাবে প্রকাশ করাই হবে দ্য ডেইলি পিপলস লাইফ পত্রিকার সার্থকতা।
এসময় স্পীকার পত্রিকাটির পথচলায় সর্বাঙ্গীণ সফলতা কামনা করেন।

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ এমপি বলেন, বাংলাদেশে গণমাধ্যমের বিকাশ ঘটেছে এবং তারা মুক্তভাবে কাজ করে চলেছে। তিনি বলেন, গণমাধ্যমকে দায়িত্বশীলভাবে কাজ করতে হবে। কারণ গণমাধ্যমে দেশ ও সমাজকে সঠিক পথে এগিয়ে নিতে পারে।
এসময় তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ এমপি কেক কাটার মাধ্যমে ‘দ্যা ডেইলি পিপলস লাইফ’ পত্রিকার শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন টেলিভিশন, ফিল্ম ও ফটোগ্রাফি বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এ জে এম শফিউল আলম ভূঁইয়া, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো ভাইস চ্যান্সেলর ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, ডেইলি অবজারভারের সম্পাদক ইকবাল সোবহান চৌধুরী, তৃণমূল বিএনপি’র চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী বীরবিক্রম, প্রেস ইন্সটিটিউট বাংলাদেশের মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ, ডিএফপি’র মহাপরিচালক এস এম গোলাম কিবরিয়া, তথ্য অধিদপ্তরের প্রধান তথ্য অফিসার শাহেনুর মিয়া, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবুল কালাম আজাদ এবং দ্য সিটি ব্যাংকের চেয়ারম্যান আজিজ আল কায়সার টিটুসহ আরও অনেকে।

সংসদ সদস্য সায়মন সাদিক এমপি, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ,  প্রথিতযশা সাংবাদিকবৃন্দ, বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ, আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এবং গণমাধ্যম কর্মীরা এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, রুপান্তর প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়